1. qawmivoiceb@gmail.com : Mahbub :
হায়েজা স্ত্রীর যে অঙ্গ স্পর্শ করা মানা | কওমী ভয়েস
শুক্রবার, ০৭ মে ২০২১, ০৪:৩৬ পূর্বাহ্ন

হায়েজা স্ত্রীর যে অঙ্গ স্পর্শ করা মানা

মুফতী মাহবুব
  • আপডেট সময়: বুধবার, ৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ২৯৮ জন দেখাছেন

বালেগা নারীর প্রতি মাসে হায়েজ হওয়া স্বাভাবিক ও প্রাকৃতিক নিয়ম। হায়েজ অবস্থায় স্ত্রীর সাথে স্বামীর কি আচরণ হবে ইসলাম সেটাও বলে দিয়েছে। হায়েজ অবস্থায় স্ত্রীর সাথে সম্পর্ক করার তিন সূরত। যথা-

এক- সহবাস করা। এটি হারাম। এতে কোন সন্দেহ নেই।
দুই-নাভির উপর থেকে বাকি অংশ এবং হাটুর নিচ থেকে বাকি অংশ স্পর্শ করা জায়েজ। এতেও কোন মতভেদ নেই।
তিন- নাভির নিচ থেকে হাটু পর্যন্ত স্পর্শ করা কাপড়ের উপর দিয়ে। এটিও জায়েজ আছে। কোন সমস্যা নেই।
পাঁচ- নাভির নিচ থেকে হাটু পর্যন্ত স্পর্শ করা কাপড় ছাড়া সরাসরি। এতে মতভেদ আছে। কারো কারো মতে সহবাস না করলে জায়েজ আছে। বাকি ইমাম আবূ হানীফা রহ., ইমাম শাফেয়ী রহ., ইমাম মালিক রহ. সহ অধিকাংশ আলেমদের মতে তা জায়েজ নয়। তাই কাপড় ছাড়া তা পরিহার করতে হবে।
বিস্তারিত জানতে দেখুন-

فَيَجُوزُ الِاسْتِمْتَاعُ بِالسُّرَّةِ وَمَا فَوْقَهَا وَالرُّكْبَةِ وَمَا تَحْتَهَا وَلَوْ بِلَا حَائِلٍ، وَكَذَا بِمَا بَيْنَهُمَا بِحَائِلٍ بِغَيْرِ الْوَطْءِ وَلَوْ تَلَطَّخَ دَمًا، (رد المحتار، كتاب الطهارة، باب الحيض-1/486، البحر الرائق، باب الحيض-1/198، الهندية، الفصل الرابع فى احكام الحيض-1/39)

اعلم ان مباشرة الحائض على ثلاثة انواع احدها المباشرة فى الفرج بالوطئ وهو حرام بالنص والاجماع، والثانى المباشرة بما فوق السرة ودون الركبة باليد او الذكر وغيره وهو مباح بالاجماع، والثالث الاستمتاع بما بينهما خلا الفرج والدبر فمختلف فيما بين الائمة، وقال ابو حنيفة ومالك والشافعى رحمهم الله واكثر العلماء لا يجوز، (اوجز المسالك، باب ما يحل للرجل من امرأته وهى حائض-1/326، رد المحتار-1/486، الهندية-1/39

والله اعلم بالصواب

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এজাতীয় আরও পড়ুন
©২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত| এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।
ডিজাইন কওমী ভয়েস