1. qawmivoiceb@gmail.com : Mahbub :
  2. muftimahbub454@gmail.com : কওমী ভয়েস : কওমী ভয়েস
মহিলাদের খোলা মুখে ইউটিউবে দীনের দাওয়াত দেয়া বিষয়ে দেওবন্দের ফাতওয়া | কওমী ভয়েস
বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন ২০২১, ০৪:০৭ অপরাহ্ন

মহিলাদের খোলা মুখে ইউটিউবে দীনের দাওয়াত দেয়া বিষয়ে দেওবন্দের ফাতওয়া

ইসলামী ডেস্ক
  • আপডেট সময়: রবিবার, ১৬ মে, ২০২১
  • ৯৫ জন দেখাছেন

বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনা করে, নিকাব ছাড়া চেহারা খোলা রেখে কোনও মহিলা শিক্ষক কি ইউটিউব বা অন্য কোনও চ্যানেলে দীনের দাওয়াত দিতে পারবেন? কুরআন ও হাদীসের আলোকে এর বিস্তারিত উত্তর দেওবন্দের ফতোয়া বিভাগে জানতে চেয়েছেন জনৈক ব্যক্তি। এর ফতোয়া দেওবন্দ থেকে বলা হয়, না কোনো মহিলা নিজের চেহারা খোলা রেখে ইউটিউবে দনের দাওয়াত দিতে পারবে না। এটা জায়েজ নেই। বিস্তারিত দেখুন,

উত্তর : পরম করুণাময়, অতি দয়ালু আল্লাহর নামে।

শরিয়তে মহিলাদের জন্য অপরিচিত ব্যক্তির সাথে পর্দা করা বাধ্যতামূলক এবং পর্দাতে চেহারা বা মুখও অন্তর্ভুক্ত। কারণ এটি সৌন্দর্যের সমাগম, এবং নারীদের পর্দার আদেশ দেওয়া হয়েছে ফেতনা সৃষ্টির আশঙ্কার কারণে। আজকাল ব্যভিচার ও খারাপ কাজের আধিক্য ফেতনা সৃষ্টির ভয়কে আরও তীব্র করে তুলেছে। আর ইউটিউব চ্যানেল বিশ্বের যে কোনও জায়গায় একটি সাধারণ প্ল্যাটফর্ম হিসেবে বিবেচিত। এটা সবাই দেখতে পায়। সুতরাং কোনও মহিলা শিক্ষক বা একজন শিক্ষক-শিক্ষিকা মুসলিম মহিলার পক্ষে ধর্মীয় আমন্ত্রণের নামে বা কোনও কাজের জন্য মুক্ত মুখ বা চেহারা খোলা নিয়ে ইউটিউব চ্যানেলে আসা ঠিক নয়। এটা জায়েজ নেই। এছাড়াও, ইউটিউবে ফটোগ্রাফি এবং ভিডিওগ্রাফি দেয়াও পাপ।

কারণ দেওবন্দী আলেমদের গবেষণা হলো, ‘ডিজিটাল চিত্রগুলি সাধারণ চিত্রগুলির মতোই অবৈধ। যথা: জীবিতদের ফটোগ্রাফি এবং ভিডিওগ্রাফিও ডিজিটাল ফটোগ্রাফি এবং অ-ডিজিটাল ফটোগ্রাফির মতো। উভয়টিই গুনাহের অন্তর্ভুক্ত এবং উভয়টিই অবৈধ।’

আল্লাহ তায়ালা ইরশাদ করেছেন:  يَا أَيُّهَا النَّبِيُّ قُل لِّأَزْوَاجِكَ وَبَنَاتِكَ وَنِسَاء الْمُؤْمِنِينَ يُدْنِينَ عَلَيْهِنَّ مِن جَلَابِيبِهِنَّ ذَلِكَ أَدْنَى أَن يُعْرَفْنَ فَلَا يُؤْذَيْنَ وَكَانَ اللَّهُ غَفُورًا رَّحِيمًا অর্থ: হে নবী! আপনি আপনার পত্নীগণকে ও কন্যাগণকে এবং মুমিনদের স্ত্রীগণকে বলুন, তারা যেন তাদের চাদরের কিয়দংশ নিজেদের উপর টেনে নেয়। এতে তাদেরকে চেনা সহজ হবে। ফলে তাদেরকে উত্যক্ত করা হবে না। আল্লাহ ক্ষমাশীল পরম দয়ালু। (সুরা আহযাব, আয়াত: ৫৯)

হজরত আবু বকর রা. বলেছেন: এই আয়াতে এটা প্রমাণিত যে, একজন যুবতী পর্দার জন্য আদিষ্ট। তার চেহারা অপরিচিত মানুষের নজরের বাইরে থাকবে। (আহকামুল কুরআন লিল জুস্সাস, খণ্ড-৩, পৃষ্ঠা-৩৭২)।

আল্লাহ তায়ালা ইরশাদ করেন: وَقَرْنَ فِي بُيُوتِكُنَّ وَلَا تَبَرَّجْنَ تَبَرُّجَ الْجَاهِلِيَّةِ الْأُولَى অর্থ: তোমরা গৃহাভ্যন্তরে অবস্থান করবে-বর্বর যুগের অনুরূপ (মহিলাদের মতো) নিজেদের প্রদর্শন করবে না।

হজরত আলী ইবনে আবী তালহা রা. ইবনে আব্বাস রা. থেকে বর্ণনা করেছেন, আল্লাহ তায়ালা মুমিনদের স্ত্রীদের আদেশ করছেন, তারা যখন কোনো প্রয়োজনে বের হবে তখন যেনো তারা তাদের মাথার কাপড় দ্বারা চেহারা ঢেকে নেয়। শুধু একটি চোখ খোলা রাখে। (তাফসীরে ইবনে কাসীর, পৃষ্ঠা নং ১০৩৮)

দেওবন্দের ফতোয়া বিভাগে দেয়া এ প্রশ্নোত্তর লিঙ্ক : https://darulifta-deoband.com/home/ur/women-s-issues/603457

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এজাতীয় আরও পড়ুন
©২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত| এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।
Theme Customized BY QawmiVoice