1. qawmivoiceb@gmail.com : Mahbub :
  2. muftimahbub454@gmail.com : কওমী ভয়েস : কওমী ভয়েস
বড়দের গায়ে পা লাগা নিয়ে ইসলাম কী বলে | কওমী ভয়েস
বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন ২০২১, ০৩:৩৪ অপরাহ্ন

বড়দের গায়ে পা লাগা নিয়ে ইসলাম কী বলে

মুফতী মাহবুব
  • আপডেট সময়: মঙ্গলবার, ৮ জুন, ২০২১
  • ৩ জন দেখাছেন

জিজ্ঞাসাঃ কারো গায়ে যদি ছোট / বড় ইচ্ছা করে বা অনিচ্ছাকৃত লাথি লাগে বা কারো গায়ের উপর যদি পা উঠিয়ে দেয় সে বিষয় এ ইসলাম কি বলে? অনেকে আবার বড়দের শরীরে পা লাগলে হাত দিয়ে সালাম করে। এভাবে সালাম করা কি ঠিক?

সমাধানঃ এটি সামাজিক আদবের মধ্যে পড়ে। যেখানে এমন করাটি সৌজন্য সেখানে করা যায়। এটি শরীয়তের কোনো বিধান নয়।
এতে ক্ষমা চেয়ে নিতে পারেন। আর মুরব্বীদের বা বড়দের গায়ে পা লাগলে চুমু খাওয়াটি মূলত সম্মান দেখাতে করা হয়ে থাকে। এটা করাতেও কোন সমস্যা নাই। তবে এক্ষেত্রে ঝুঁকা হারাম। কেননা এতে সেজদার অবস্থা চলে আসে। আর সেজদা একমাত্র আল্লাহ ছাড়া অন্য কাউকে করা জায়েজ নয়। আর এধরনের কাজ হলো মুবাহ। এতে কোন পুরস্কার ও নাই আবার শাস্তি ও নাই। এটা শুধু ভদ্রতা বা নম্রতা। বিনয় ও সরলতা সম্পর্কে কুরআনে আছে, যারা পৃথিবীতে বিনয়ের সাথে চলাফেরা করে, তারাই আল্লাহ তাআলার প্রকৃত বান্দা।( সুরা ফোরকান: ৬৩)

নম্রতা বা ভদ্রতা সম্পর্কে হাদিসে আছে –

হযরত জারীর ইবন আব্দুল্লাহ (রা) বলেন রাসুলুল্লাহ (সা) বলেছেন : যে ব্যক্তি স্বভাবের নম্রতা হতে বঞ্চিত হয়েছে, সে কল্যাণ হতেও বঞ্চিত হয়েছে। (বুখারী)

অন্য এক হাদিসে আছে –

হযরত আব্দুল্লাহ ইবন মুগাফ্ফাল (রা) বর্ণনা করেন, নবী (সা) বলেছেন: আল্লাহ নম্র, তিনি নম্রতা পছন্দ করেন এবং নম্রতার দরুন (বান্দাকে) এমন (নিয়ামত) দান করেন যাহা কঠোরতায় দান করেন না। (বুখারী)

বড়দের সম্মান করা সম্পর্কে হাদিসে রয়েছে –

হযরত আব্দুল্লাহ ইবন আমর ইবনুল ‘আস (রা) বলেন: সে ব্যক্তি আমাদের দলভুক্ত নয়, যে আমাদের ছোটদের প্রতি দয়া করে না এবং বড়দের সম্মান করে না। (বুখারী)

কারো গায়ে পা লাগানো বেয়াদবির পর্যায়ে যায়। তাই, কারো গায়ে পা লাগানো যাবে না।  আর যদি অনিচ্ছায় পা লেগে যায়, তবে তাকে সতর্কতার সাথে (কারণ মাথা ঝুঁকানো যাবে না) সালাম করা যেতে পারে অথবা তার কাছ থেকে মাফ বা ক্ষমা চেয়ে নিতে হবে। মূলত, নম্রতা বা ভদ্রতা দেখাতে হবে। কারণ, আল্লাহ ও রাসুল (সা) নম্র আচরণ করতে বলেছেন।

তবে, শিরক বা গোনাহ হয় না এমন সামাজিক আদব, সৌজন্য বা আচরণ ইসলামে নিষিদ্ধ নয়।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এজাতীয় আরও পড়ুন
©২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত| এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।
Theme Customized BY QawmiVoice