কওমী সাহিত্য

প্রেমের দাওয়াই

  Mahbub ৮ জানুয়ারি ২০২২ , ৪:৫৮ পূর্বাহ্ণ প্রিন্ট সংস্করণ

মাওলানা মুহাম্মাদ আবদুল আলীম


তখন উমরের শাসনকাল। এক মহিলা মসজিদে নববীতে গিয়ে নামায পড়তেন। পর্দা কখনও লঙ্ঘন করতেন না। তারপরও এক যুবক কোন প্রকারে তার চেহারা দেখে ফেলে এবং সে মহিলার প্রতি আকৃষ্ট হয়ে পড়ে। যুবক মহিলার বাড়ির পাশ দিয়ে যাতায়াত শুরু করে দেয়।

মহিলা ছিলেন বিবাহিতা। তা সত্ত্বেও যুবক তাকে প্রেমের প্রস্তাব দেয়। মহিলা প্রস্তাব শুনে ভাবনায় পড়ে যান। কিন্তু তিনি ছিলেন খুব বুদ্ধিমতী। নিজেকে সামলে নিয়ে যুবকের উদ্দেশে বলেন, তোমার কথা রাখতে পারি, যদি তুমি একটি শর্ত পূরণ করো।
যুবক বলে, কী শর্ত?

মহিলা বলেন, উমরের পিছনে চল্লিশ দিন প্রথম তাকবীরের সাথে জামাতে নামায পড়তে হবে। এই শর্ত পূরণ করলে আমি তোমার কথা রাখব।
যুবক দেখে খুব সহজ শর্ত। এটা পূরণ করা কোন ব্যাপারই না। এজন্য শর্ত মেনে নেয় সে।

এরপর সে উমরের পিছনে তাকবীরে উলার সাথে নামায আদায় শুরু করে। প্রথম দিকে উমরের পিছনে নামায এবং মহিলার বাড়ির পাশ দিয়ে যাতায়াত দুটোই অব্যাহত থাকে। কয়েক দিন পর মহিলার বাড়ির পাশ দিয়ে যাওয়া-আসা সে কমিয়ে দেয়। এমন কি এক মাস যাওয়ার পর মহিলার বাড়ির দিকে পা বাড়ানোই বন্ধ করে দেয় সে।

চল্লিশ দিন অতিবাহিত হওয়ার পর মহিলা যুবককে খবর পাঠান, কই তোমার প্রস্তাবের কী হল?
উত্তরে যুবক বলে, না; এখন দিলটা আল্লাহকে দিয়ে ফেলেছি। দুনিয়ার কাউকে আর ভালো লাগে না।
মহিলা তার স্বামীর কাছে ঘটনা খুলে বললেন। স্বামী চলে গেলেন উমরের কাছে। খলীফার কাছে তুলে ধরলেন বিস্তারিত কাহিনী। উমর সব শুনে বললেন, আল্লাহ সত্য বলেছেন, নিশ্চয় নামায অশ্লীল ও গর্হিত কাজ থেকে ফিরিয়ে রাখে।


মুহাদ্দিস, খতিব, লেখক