1. qawmivoiceb@gmail.com : Mahbub :
  2. muftimahbub454@gmail.com : কওমী ভয়েস : কওমী ভয়েস
পাঁচ কল্লি টুপি ছাড়া অন্য টুপি নাজায়েজ | কওমী ভয়েস
বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন ২০২১, ০২:৫৩ অপরাহ্ন

পাঁচ কল্লি টুপি ছাড়া অন্য টুপি নাজায়েজ

কওমী ভয়েস
  • আপডেট সময়: মঙ্গলবার, ৮ জুন, ২০২১
  • ৩ জন দেখাছেন

জিজ্ঞাসাঃ আমি একজন হুজুরের ক্লাসে আরবি পড়ি, যিনি আলিয়া মাদ্রাসায় পড়ালেখা করছেন। কথা প্রসঙ্গে তিনি বললেন কওমী মাদ্রাসার হুজুররা শুধু মাত্র ৫ পট্টি/খাজের মত টুপি ব্যবহার করে আর অন্যান্য টুপি ব্যবহার নাজায়েজ বলে কারণ, অন্যান্য গুলা মাথার সাথে লেগে থাকে না এরকম কিছু। কিন্তু এই সম্পর্কে কুরআন-হাদীসে কোন বক্তব্য নাই, তাই যেকোনো সাধারন টুপি কে নাজায়েজ বলা যাবে না। কিন্তু কওমীরা অকারণে নাজায়েজ বলে। এই সম্পর্কে বিস্তারিত জানালে উপকৃত হবো।

সিহাব

সমাধানঃ আপনার উক্ত উস্তাদের মন্তব্যটি কওমী উলামায়ে কেরাম সম্পর্কে অজ্ঞতাবশতঃ বলা। কারণ এর সাথে বাস্তবতার কোন মিল নেই। বিজ্ঞ কোন কওমী আলেম এমনটি বলেন না। টুপি পড়া সুন্নত। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহিস ওয়াসাল্লাম টুপি পরিধান করেছেন। সাহাবায়ে কেরাম টুপি পরিধান করেছেন।

হাসান বিন মেহরান থেকে বর্ণিত-

عن رجل من الصحابة : قال : أكلت مع رسول الله صلى الله عليه وسلم، ورأيت عليه قلنسوة بيضاء

একজন সাহাবী বলেছেন, ‘আমি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর সাথে তাঁর দস্তরখানে খেয়েছি এবং তাঁর মাথায় সাদা টুপি দেখেছি’ (আল ইসাবাহ ৪/৩৩৯)

উম্মুল মুমিনীন আয়েশা রা. বলেন

أن النبي صلى الله عليه وسلم كان يلبس من القلانس في السفر ذوات الآذان، وفي الحضر المشمرة يعني الشامية.

রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম সফর অবস্থায় কান বিশিষ্ট টুপি পরতেন আর আবাসে শামী টুপি পরতেন। (আখলাকুন নুবুওয়্যাহ, আল জামে লি আখলাকির রাবী ওয়া আদাবিস সামে পৃ. ২০২)

উমর ইবনে খাত্তাব রা. রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে বলতে শুনেছেন-

الشهداء ثلاثة : رجل مؤمن … ورفع رسول الله صلى الله عليه وسلم رأسه حتى وقعت قلنسوته أو قلنسوة عمر.

শহীদ হল তিন শ্রেণীর লোক : এমন মুমিন … এবং রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম মাথা তুললেন। তখন তাঁর টুপি পড়ে গেল। অথবা বলেছেন উমরের টুপি পড়ে গেল। (মুসনাদে আহমাদ, হাদীস : ১৪৬ জামে তিরমিযী, হাদীস : ১৬৪৪ ইত্যাদি)

হাসান বসরী রাহ. বলেন,

وكان القوم يسجدون على العمامة والقلنسوة

তাঁরা (সাহাবায়ে কেরাম গরমের দিনে) পাগড়ি বা টুপির উপর সিজদা করতেন।-সহীহ বুখারী, কিতাবুস সালাত ‘প্রচন্ড গরমের কারণে কাপরের উপর সিজদা করা’ অধ্যায়।

উল্লেখ্য, হাসান বসরী রাহ. অনেক বড় মনীষী তাবেয়ী, যিনি অনেক সাহাবীকে দেখেছেন এবং তাদের সাহচর্য গ্রহণ করেছেন।

সুলাইমান ইবনে আবি আবদিল্লাহ বলেন,

أدركت المهاجرين الأولين يعتمون بعمائم كرابيس سود وبيض وحمر وخضر وصفر، يضع أحدهم العمامة على رأسه ويضع القلنسوة فوقها، ثم يدير العمائم هكذا على كوره لا يخرجها من ذقنه

আমি প্রথম সারির মুহাজিরগণকে দেখেছি তাঁরা সুতির পাগড়ি পরিধান করতেন। কালো, সাদা, লাল, সবুজ, হলুদ ইত্যাদি রংয়ের। তারা পাগড়ির কাপড় মাথায় রেখে তার উপর টুপি রাখতেন। অতপর তার উপর পাগড়ি ঘুরিয়ে পরতেন।-মুসান্নাফে ইবনে আবী শাইবা ১২/৫৪৫

হেলাল ইবনে ইয়াসাফ বলেন,

قدمت الرقة فقال لي بعض أصحابي : هل لك في رجل من أصحاب النبي صلى الله عليه وسلم؟ فقلت : غنيمة. فدفعنا إلى وابصة، فقلت  لصاحبي : نبدأ فننظر إلى دله فإذا عليه قلنسوة لا طية ذات أذنين.

আমি রাক্কায় গিয়েছিলাম তখন আমার এক সাথী আমাকে বললেন, তুমি কি নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাললাম-এর একজন সাহাবীর নিকট যেতে ইচ্ছুক? আমি বললাম, ‘এ তো গনীমত।’ তারপর আমরা ওয়াবেছা রা.-এর নিকট গেলাম। আমি আমার সাথীকে বললাম, দাঁড়াও, প্রথমে আমরা তাঁর আচার-আখলাক দেখব। তাঁর মাথায় দুই কান বিশিষ্ট টুপি ছিল, যা মাথার সঙ্গে মিশে ছিল।-সুনানে আবু দাউদ, হাদীস : ৯৪৯

হিশাম বলেন,

رأيت على ابن الزبير قلنسوة

আমি ইবনে যুবায়ের রা.-এর মাথায় টুপি দেখেছি।-মুসান্নাফে ইবনে আবী শাইবা, হাদীস : ২৫৩৫৩

আশআছ রাহ. তাঁর পিতা থেকে বর্ণনা করেন-

أن أبا موسى خرج من الخلاء وعليه قلنسوة،

আবু মুসা আশআরী রা. হাম্মাম থেকে বের হলেন। তার মাথায় টুপি ছিল।-মুসান্নাফে ইবনে আবী শাইবা ১০/৫১০

আববাদ ইবনে আবী সুলাইমান বলেন,

رأيت على أنس بن مالك قلنسوة بيضاء

আমি আনাস ইবনে মালেক রা.-এর  মাথায় একটি সাদা টুপি দেখেছি।-তবাকাতে ইবনে সাদ ৫/১২১

আবু হাইয়ান বলেন,

كانت قلنسوة علي لطيفة

হযরত আলী রা.-এর টুপি ছিল পাতলা।-তবাকাতে ইবনে সাদ ৩/২৩

ইবনে সাদ আলী রা.-এর জীবনীতে তাঁর পোশাকের আলোচনায় তার টুপি সম্পর্কে আলাদা শিরোনাম এনেছেন।

আবদুল্লাহ ইবনে উমর রা. মাথা মাসাহর সময় টুপি উঠিয়ে নিতেন এবং অগ্রভাগ মাসাহ করতেন।-সুনানে দারা কুতনী, হাদীস : ৫৫; সুনানে কুবরা, বায়হাকী, হাদীস : ২৮৮ফাযারী রাহ. বলেন,رأيت على علي قلنسوة بيضاء مصرية

আমি আলী রা.-এর মাথায় সাদা মিসরী টুপি দেখেছি।-তবাকাতে ইবনে সাদ ৩/২৩

সায়ীদ ইবনে আবদুল্লাহ বলেন,

رأيت أنس بن مالك أتى الخلاء، ثم خرج وعليه قلنسوة بيضاء مزرورة

আমি আনাস ইবনে মালেক রা. কে দেখেছি, তিনি হাম্মাম থেকে বের হলেন। তার মাথায় বোতাম বিশিষ্ট সাদা টুপি ছিল।-মুসান্নাফে আবদুর রাযযাক ১/১৯০

আবদুল হামীদ বিন জাফর তার পিতা থেকে বর্ণনা করেন, খালিদ বিন ওয়ালিদ রা. ইয়ারমূক যুদ্ধের দিন তার একটি টুপি হারিয়ে ফেললেন। অনেক খোঁজাখুঁজির পর তা পাওয়া গেল। তা ছিল একটি পুরানো টুপি। খালেদ রা. বললেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম উমরারপর মাথা মুন্ডন করলেন। সাহাবীগণ তাঁর চুল নেওয়ার জন্য ছুটতে লাগলেন। আমি গিয়ে তাঁর মাথার অগ্রভাগের চুলগুলি পেলাম। তা এ টুপিতে লাগিয়ে রেখেছি। যে যুদ্ধেই এ টুপি আমার সাথে ছিল তাতেই আল্লাহর সাহায্য পেয়েছি।-দালাইলুন নুবুওয়াহ ৬/২৪৯

এরকম অসংখ্য বর্ণনা সাহাবায়ে কেরাম ও তাবেয়ীগণ থেকে পাওয়া যায়। যা দ্বারা প্রমাণিত হয় যে, টুপি পরিধান করা মুসলমানদের ঐতিহ্য। কিন্তু সেটির ধরণ কী হবে? তা বিভিন্ন মনীষী থেকে বিভিন্ন ধরণের প্রমাণিত। তাই নির্দিষ্ট কোন একটি পদ্ধতির টুপিকে বাধ্যবাধক করে নেয়া বাড়াবাড়ি ছাড়া কিছু নয়।

বাকি খেয়াল রাখা উচিত তা যেন শালীনতা বহির্ভূত না হয়। যেমন অনেকে এত বেশি নকশাদার টুপি পরিধান করেন যে, দেখতে অদ্ভুত দেখা যায়। এমন টুপি পরিধান করা উচিত নয় যা ধর্মীয় পোশাক হিসেবে চিহ্নিত করা না যায়, বরং তা ভিন্ন ধর্মাবলম্বীর ফ্যাশন বুঝা যায়।

যাইহোক। মোটকথা হল, প্রশ্নে উল্লেখিত আলিয়া মাদরাসার আলেম সাহেবের অজ্ঞতাসূচক বক্তব্যের কোন বাস্তব ভিত্তি নেই। তিনি কেবলি তার অজ্ঞতার কারণে উপরোক্ত বক্তব্য প্রদান করেছেন। শালীন ও ধর্মীয় ভাবগাম্ভির্য প্রকাশক সব ধরণের টুপিই ইসলাম সমর্থিত। আর এ উপমহাদেশে ইসলামের প্রধানতম ধারক এবং কুরআন ও হাদীস সম্পর্কে সর্বাধিক গবেষক কওমী উলামায়ে কেরাম এ বিষয়ে অহেতুক গোঁড়ামী করবেন তা বিশ্বাস্য নয়।

والله اعلم بالصواب

উত্তর লিখনে

লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এজাতীয় আরও পড়ুন
©২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত| এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।
Theme Customized BY QawmiVoice