ধর্ম-ইসলাম

একজন মানুষের কোনো একটা বিষয় প্রমাণ করার ক্ষমতা আসলে কতটুকু?

  Mahbub ১৮ জানুয়ারি ২০২২ , ২:৪৬ পূর্বাহ্ণ প্রিন্ট সংস্করণ

সবসময় তো নাস্তিকরা বলে সৃষ্টিকর্তার অস্তিত্ব প্রমাণ করতে। আজ হোক ব্যতিক্রম কিছু। আজ নাস্তিকদের প্রমাণ করতে হবে এমন কিছু যা তারা বিশ্বাস করে, হোক সেটা বিজ্ঞান দিয়েই।

ধরেন, একজন নাস্তিককে আমি বললাম ০-৯ পর্যন্ত যেকোনো একটা সংখ্যা মনে মনে সিলেক্ট করুন।
লোকটা একটা সংখ্যা সিলেক্ট করে আমাকে বললো সিলেক্ট করলাম।
তারপর তাকে একটা কাগজ আর কলম দিয়ে বললাম সেই সংখ্যাটা এই কাগজটাতে লিখে আমাকে দেখান।
এখন লোকটা লিখলো ‘২’।
এখন ঐ নাস্তিককে আমি বললাম আপনি সত্যি সত্যি ‘২’ ধরেছেন এটার প্রমান কি? আমি আপনার কথা বিশ্বাস করি না।
কিন্তু ঐ নাস্তিক মনে প্রাণে বিশ্বাস করে সে ‘২’ই ধরেছে। কারণ সে জানে, সে সত্যি সত্যি ‘২’ই ধরেছে।
কিন্তু আমি বললাম- আপনি মুখ দিয়ে বললে তো হবে না, আজকে আমাকে এটা প্রমাণ করে দেখাতেই হবে যে আপনি মনে মনে ২ ধরলেন।

এখন তার কাছে কি এমন কোনো সাইন্স/প্রযুক্তি/লজিক আছে? যার দ্বারা সে প্রমাণ করতে পারবে সে মনে মনে ‘২’ই ধরেছে।

–না, পারবে না সে। কারণ এখন পর্যন্ত মানুষ এমন কোনো প্রযুক্তি আবিষ্কার করতে পারেনি বা বিষয়টি প্রমাণ করার মতো সক্ষমতা মানুষ অর্জন করতে পারেনি।

তাই বলে কি নাস্তিকটা যে মনে মনে ‘২’ সংখ্যাটি ধরলো তা মিথ্যা হয়ে গেলো??

–না, বরং সেটা সত্য, তবে সেটা প্রমাণ করার মতো সক্ষমতা সে অর্জন করতে পারেনি। তাই বলে তার মনে মনে ‘২’ সংখ্যাটা ধরা মিথ্যা হয়ে যায়নি।

কিন্তু যখন আমরা বলি আমরা সৃষ্টিকর্তায়(আল্লাহ) বিশ্বাসী, তখন একদল নাস্তিক প্রমাণ দেখাতে বলে। যদিও তাদেরকে নানাভাবে প্রমাণ দেওয়া হয় তবুও তারা তা অগ্রাহ্য করে। কারণ তারা তো অন্ধ যদিও তাদের দৃষ্টিশক্তি সম্পন্ন চক্ষু আছে। তারা তো আশরাফুল মাখলুকাত হয়েও চতুষ্পদীজন্তুর চাইতেও অধম।

তাদের লজিকগুলো এতটাই ঠুকনো যে তাদের লজিক দিয়ে তাদের লজিককেই খন্ডন করা যায়।
এর জন্য আপনাকে অতিজ্ঞানী হওয়া লাগবে না।

এরা খুবই আজব পাব্লিক, এরা বিজ্ঞান নিয়ে বাড়াবাড়ি করতে করতে একপ্রকার গোলকধাঁধায় হারিয়ে গিয়েছে।

It’z Moon ফেসবুক আইডি থেকে নেওয়া।