1. qawmivoiceb@gmail.com : Mahbub :
অসামাজিক কার্যকলাপের দায়ে আবু হানিফা নারীসহ আটক! | কওমী ভয়েস
বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ০২:০৬ পূর্বাহ্ন

অসামাজিক কার্যকলাপের দায়ে আবু হানিফা নারীসহ আটক!

ইসলামী ডেস্ক
  • আপডেট সময়: রবিবার, ৪ এপ্রিল, ২০২১
  • ১৩৩ জন দেখাছেন

রাতের আঁধারে ইমাম আবু হানিফা রাহ.-এর দুয়ারে বাঁচাও বাঁচাও বলে এক মহিলার ফরিয়াদ। বাঁচার আকুতি শুনে আবু হানিফা দুয়ার খুলে বের হন। মহিলা হাউমাউ করে কেঁদে আবু হানিফাকে জড়িয়ে ধরে। আগে থেকে ওতপেতে থাকা পুলিশ মুহুর্তে এসে হাজির। হাতকড়া পরিয়ে আবু হানিফাকে নেওয়া হলো কারাগারে। সঙ্গে মহিলাও। পরদিন রাজ্যজুড়ে খবর সয়লাব : অসামাজিক কার্যকলাপের দায়ে আবু হানিফা নারীসহ আটক!

আবু হানিফা কারাগারে গিয়ে তাওবাহ-ইস্তেগফার আর আল্লাহর সাহায্য কামনায় মশগুল। আল্লাহর প্রিয় বান্দার সালাত, তাসবিহ, ইসতেগফার আর বুকভরা কান্না দেখে মহিলার হৃদয় গলে। দয়াপরবশ হয়। কৃত অপরাধের জন্য অনুশোচনা হয় তাঁর।

মহিলা সুযোগ বুঝে আবু হানিফার কাছে যায়। কায়মনোবাক্যে ক্ষমাপ্রার্থনা করে। ষড়যন্ত্রের গোপন কাহিনি আবু হানিফাকে খুলে বলে।

সব শোনে আবু হানিফা তাঁকে ষড়যন্ত্রের মোকাবিলায় একটি কৌশল তামিলের নির্দেশ প্রদান করেন। মহিলা তাঁর কথায় সম্মত হয়।

মহিলা বিশেষ প্রয়োজনের কথা জানিয়ে প্যারোলে মুক্তির জন্য পুলিশের কাছে আবেদন জানায়। পুলিশ আবেদন মঞ্জুর করে মহিলাকে কিছু সময়ের জন্য প্যারোলে মুক্তি দেয়। মহিলা পুলিশি পাহারায় ইমাম আবু হানিফার ঘরে গিয়ে পৌঁছে। অন্দরমহলে গিয়ে আবু হানিফার স্ত্রীকে কানে কানে বলে, ‘আপনার স্বামী কারাগার থেকে আমাকে বিশেষ খবর দিয়ে পাঠিয়েছেন। আপনি আমার গায়ের বোরকা পরে পুলিশের সঙ্গে এখনই কারাগারে চলে যান।’

আবু হানিফা রাহ.-এর স্ত্রী পুলিশের সাথে সোজা কারাগারে চলে যান। পরদিন আদালতে মামলার শুনানি। ইমাম আবু হানিফা কাঠগড়ায় উপস্থিত। সঙ্গে মহিলাও। সবাই আবু হনিফার বিরুদ্ধে একটি শাস্তির রায় শোনার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষমাণ।

শুনানির শেষ পর্যায়ে আবু হানিফাকে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ প্রদান করে আদালত। আবু হানিফা কাঠগড়ায় দাঁড়ানো মহিলাকে দেখিয়ে আদালতকে উদ্দেশ্য করে বলেন, আমার চারিত্রিক পবিত্রতার প্রমাণ আদালতে দাঁড়ানো অভিযুক্ত এ মহিলা। আমি আমার আত্মপক্ষ সমর্থন করে কিছু বলবো না। এ মহিলাই আমার চরিত্রের সাক্ষ্য প্রদান করবে।

আবু হানিফার কথা শুনে আদালত মহিলাকে জবানবন্দির নির্দেশ প্রদান করে। মহিলা তখন দৃপ্ত কণ্ঠে বলেন, রাতের আঁধারে যে আবু হানিফাকে গ্রেফতার করা হয়েছে তিনি চরিত্রহীন ও লম্পট কোনো মানুষ নয়। তিনি আমার পবিত্র স্বামী। আমি তাঁর পবিত্র চরিত্রের রাজসাক্ষী। আর রাতের আঁধারে যে মহিলাসহ তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে, সে আমি আবু হানিফার পবিত্র স্ত্রী।

যুগে যুগে এভাবে আলেমদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র হয়েছে, হবে। যুগের আবু হানিফাদের ভয়ের কারণ নেই। হারাবারও কিছু নেই। তবে আরও সতর্ক হওয়া প্রয়োজন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এজাতীয় আরও পড়ুন
©২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত| এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।
ডিজাইন কওমী ভয়েস